অস্ট্রেলিয়ায় চলছে ভোটগ্রহণ

A+ A- No icon

আজ শনিবার অস্ট্রেলিয়ায় সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ভোট দিচ্ছে অস্ট্রেলিয়াবাসী। সরকার গড়তে পার্লামেন্টের প্রতিনিধি পরিষদের (নিম্নকক্ষ) ১৫১টি আসনের মধ্যে অন্তত ৭৬টি আসনে জয় পেতে হবে। ক্ষমতাসীন মধ্য-ডানপন্থী লিবারেল-ন্যাশনাল জোট অবশ্য বর্তমানে দুটি কম আসন নিয়ে সরকারে টিকে রয়েছে। এবারের নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনের লিবারেল-ন্যাশনাল জোট ও বিরোধী নেতা বিল শর্টেনের মধ্য-বামপন্থী অস্ট্রেলিয়ান লেবার পার্টির (এএলপি) মূল লড়াই হবে বলে আভাস মিলেছে। তবে ভোটের আগের জনমত জরিপগুলো বলছে, বিরোধী দল লেবার পার্টিই এগিয়ে।


সিডনি মর্নিং হেরাল্ড ও দ্য এজ পত্রিকার জন্য করা ইপসসের জরিপে দেখা যায়, ক্ষমতাসীন জোটের চেয়ে লেবার পার্টি ৫১-৪৯ শতাংশ ভোটে এগিয়ে রয়েছে। এর ফলে অস্ট্রেলিয়ায় সরকার পরিবর্তনের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে। এমনিতে ২০১০ সালের পর দেশটির রাজনৈতিক অবস্থা বেশ টালমাটাল। প্রধানমন্ত্রী পদে এ সময় আসা-যাওয়ার খেলা চলেছে। আজকের নির্বাচনে লেবার পার্টি জয় পেলে গত ৯ বছরের মধ্যে সপ্তম প্রধানমন্ত্রীর দেখা মিলবে। এই সময়ে দেশটিতে দুটি নির্বাচন হয়েছে। একটি ২০১৩ সালে, আরেকটি ২০১৬ সালে। দুটি নির্বাচনেই লেবার পার্টি পরাজিত হয়েছে। ছয় বছর ধরে বিরোধী দলে থাকার পর এবার জয়ের আভাসে দলটির বর্তমান নেতা বিল শর্টেনকে কিছুটা স্বস্তিতে দেখা গেছে।


প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন অবশ্য উত্তর কুইন্সল্যান্ডে ভোটের প্রচারণায় গিয়ে বলেছেন, এবারের নির্বাচনে অনেক বছর পর একেবারে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের দেখা মিলবে। জনমত জরিপে বিরোধীদের এগিয়ে থাকার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয় না ভোটের আগের দিন কোনো ভোটের ফল নির্ধারিত হয়।’ লড়াই সমানে সমান হবে। এদিকে লেবার পার্টি ক্ষমতায় এলে জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়ে পদক্ষেপ নেবে বলে জানিয়েছে।

Comment As:

Comment (0)