পদত্যাগ ছাড়া মাওলানার সব দাবি মেনে নেব: ইমরান খান

A+ A- No icon

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন অব্যাহত রেখেছেন বিরোধীরা। ‘আজাদি মার্চ’-এর ব্যানারে হাজারো বিক্ষোভকারী আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছেন।আন্দোলনে দাবির বিষয়ে দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তাঁর পদত্যাগ ছাড়া সব দাবি মেনে নিতে রাজি আছেন। দেশটির জিও টিভির অনলাইনে এ খবর জানানো হয়। গত ২৭ অক্টোবর সিন্ধু প্রদেশ থেকে আজাদি মার্চের ব্যানারে দাবির পক্ষে গাড়ি শোভাযাত্রা বের করা হয়। ৩০ অক্টোবর সেই গাড়িবহর পাঞ্জাব ছেড়ে লাহোরে পৌঁছায়।

 

আর ৩১ অক্টোবর গাড়িবহরটি ইসলামাবাদে পৌঁছে দাবির পক্ষে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানায়। ক্ষমতাসীন তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধী দলের নেতারা ঝাঁজালো বক্তব্য দেন।  তাঁরা প্রধানমন্ত্রীকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে পদত্যাগের জন্য সময় বেঁধে দেন। পরে অবশ্য সময় বাড়ানো হয়। জামিয়াত উলেমা-ই-ইসলাম-ফজল (জেইউআই-এফ) প্রধান জানান, সরকারের আলোচনা কমিটির সঙ্গে কথা বলে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

 

সরকার ও বিরোধী পক্ষের মধ্যে অচলাবস্থা চলমান রয়েছে। সরকারবিরোধী রাহবার কমিটির আহ্বায়ক আকরাম দুয়ারানি বলেন, ‘আমরা আমাদের দাবির পক্ষে অনড়।’ এদিকে বিরোধীদের দাবি মেনে নিতে সরকারি কমিটিকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি জানান, সংবিধান অনুযায়ী নিজের পদত্যাগ ছাড়া বিক্ষোভকারীদের সব দাবি মেনে নেওয়ার জন্য আলোচনায় বসতে রাজি আছেন তিনি। এর আগে পাকিস্তানে গণতন্ত্র ফেরাতে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পদত্যাগ চায় বিরোধী দল পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি)।

 

এ জন্য দেশব্যাপী সরকারবিরোধী বিক্ষোভের ডাক দিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি।  প্রতিবেশী দেশ ভারতের সঙ্গে বিরোধপূর্ণ কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানের ক্ষমতাসীন সরকার আপস করেছে বলেও অভিযোগ তোলেন বিলাওয়াল। রক্ষণশীল ধর্মীয় সংগঠন জামিয়াত উলেমা-ই-ইসলাম-ফজল (জেইউআই-এফ) দলের নেতা ফজল-উর-রেহমানের ইমরান খান বিরোধী এই প্রচারণায় সমর্থন জানিয়েছে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ এবং বেনজির ভুট্টোর নেতৃত্বাধীন বিরোধী দলগুলো। তবে কোনো ধরনের অসাংবিধানিক পদক্ষেপকে তারা সমর্থন করবে না বলে জানিয়েছে।

Comment As:

Comment (0)