জাপান প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর স্থগিত

A+ A- No icon

ভারতে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ চলছেই। আসামের পাশাপাশি দেশটির রাজধানী নয়াদিল্লি ও মেঘালয় রাজ্যের রাজধানী শিলং, পাঞ্জাবের অমৃতসর ও গুজরাটের আহমেদাবাদে বিক্ষোভ হয়েছে। এর মধ্যে দিল্লি ও শিলংয়ে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষও হয়েছে। এ ছাড়া পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদে রেলস্টেশনে আগুন দিয়েছে বিক্ষোভকারীরা।

 

এই আইন প্রণয়নের পর জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে তাঁর ভারত সফর স্থগিত করেছেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য দেওয়া হয়। এ দিকে, নতুন এই আইন নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে জাতিসংঘ মানবাধিকারবিষয়ক কার্যালয় বলেছে, এই আইনে মুসলিমদের অন্তর্ভুক্ত না করায় তা ‘প্রকৃতিগতভাবে বৈষম্যমূলক’ হয়েছে। এই আইনের ফলাফল কী দাঁড়ায়, তা গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস।

 

এ ছাড়া ভারতের প্রতি ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের অধিকার রক্ষার আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এ দিকে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে নিজেদের নাগরিকদের ভ্রমণের ব্যাপারে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য। ভারতের পার্লামেন্টে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস হওয়ার পর এতে স্বাক্ষর করেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। এ আইনের প্রতিবাদে আসাম ও ত্রিপুরা কয়েক দিন ধরে কার্যত অচল। বিভিন্ন জায়গায় জারি করা হয়েছে কারফিউ, নামানো হয়েছে সেনাবাহিনী। 


রয়টার্স জানায়, নয়াদিল্লিতে বিক্ষোভ করেন জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এ সময় পুলিশের সঙ্গে তাঁদের সংঘর্ষ হয়। এনডিটিভি জানায়, মেঘালয়ের শিলংয়েও বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ ও লাঠিপেটা করেছে। মেঘালয়ের উইলিয়ামনগরে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কনরাদ সাংমার পথ অবরোধ করেন বিক্ষোভকারীরা।

 

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের শিলং সফর বাতিল করা হয়েছে। তাঁর অরুণাচল সফরও বাতিল করা হয়েছে।  এএফপি জানায়, ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার বলেন, জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের ভারত সফর স্থগিত করা হয়েছে। তিন দিনের এ সফর থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল। তিনি আর বিস্তারিত তথ্য দেননি।

Comment As:

Comment (0)