করোনায় আক্রান্ত ৪০ মার্কিন নাগরিককে ফেরত নিতে যুক্তরাষ্ট্রের অস্বীকৃতি

A+ A- No icon

জাপানের ইয়োকোহামা বন্দরে কোয়ারেন্টাইনে রাখা প্রমোদতরী ডায়মন্ড প্রিন্সেসে এবার অন্তত ৪০ মার্কিন নাগরিক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এ অবস্থায় তাদের দেশে ফেরানো হবে না বলে জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা বিবিসি। যদিও যুক্তরাষ্ট্রের রোগ প্রতিরোধ এবং নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র জানিয়েছিল যে, ডায়মন্ড প্রিন্সেস ক্রুজ শিপের ৪০০ জন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিককে দেশে ফেরানো হবে। পরে তাদেরকে ১৪ দিন আলাদাভাবে থাকতে হবে। তবে তাদের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে জানায় যে, যারা করোনাভাইরাস সংক্রমিত হয়েছে তাদেরকে দেশে ফেরানো হবে না।


এদিকে করোনাভাইরাস আতঙ্কে অন্যান্য দেশের মতো যুক্তরাষ্ট্রের সাময়িকভাবে পর্যটনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। যারা চীনে গিয়েছিলেন তদের এ সময়ে দেশে ঢুকতে দেবে না জানান দেশটি। গত ৩ ফেব্রুয়ারি জাপানের ইয়োকোহামায় প্রমোদতরীটি এসে পৌঁছানোর পর দু’সপ্তাহ ধরে এটিকে আলাদা করে রাখা হয়েছে।  যাত্রীদের একে অন্যের থেকে কয়েক হাত দূরে থাকারও পরামর্শ দেয়া হয়েছে। অনেক যাত্রীর কাছেই অবশ্য এটা খাঁচাবন্দি পরিস্থিতির সমান। ভাইরাস রুখতে এছাড়া আর বিকল্পও নেই  বলে জানিয়েছে জাহাজ কর্তৃপক্ষ। তবে সেখানে আটকে পড়া মানুষগুলো প্রতিদিনই ভিডিও বার্তায় দেশে ফেরার জন্য আকুতি জানাচ্ছেন।


গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহান শহরে কভিড-১৯ নামে পরিচিত এ ভাইরাসের আবির্ভাব ঘটে।  তারপর থেকেই চীনসহ বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ে এ ভাইরাস। প্রতিনিয়ত বাড়ছে এ ভাইরাসে মৃতের ও আক্রান্তের সংখ্যা। এখন পযর্ন্ত এ ভাইরাসে মারা গিয়েছেন এক হাজার ৭৭০ জন। আক্রান্তের হয়েছেন ৭০ হাজারের বেশি মানুষ। 

Comment As:

Comment (0)