সর্বশেষ:
এরশাদের আসনে ভোটে যেতে জাপা’য় নজর বিএনপির? ‘গান্ধী পরিবারের বাইরে কেউ সভাপতি হলে কংগ্রেস ভেঙে যাবে’ : নটবর সিং ইসরায়েলে ৯০০০ বছর আগের ‘রহস্যময়’ শহরের সন্ধান ব্লগার নয়, নতুন নায়িকার সঙ্গে প্রেম শাহরুখপুত্রের! সারা দেশে ত্রাণের জন্য বানভাসি মানুষের আহাজারি : রিজভী

অর্থনৈতিক চাপে পড়বে দেশের বৃহত্তর জনগোষ্ঠী : মির্জা ফখরুল

A+A- No icon

২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট প্রতিক্রিয়ায় বিএনপি বলেছে, এ বাজেটে বাংলাদেশের বৃহত্তর জনগোষ্ঠী অর্থনৈতিক চাপে পড়বে। জনগণের প্রত্যাশা পূরণ করবে না। এই বাজেট ধনী ও ব্যবসায়ীদের স্বার্থ রক্ষার বাজেট। এ ছাড়া দলটি বলেছে, বর্তমান সরকারের বাজেট দেওয়ার কোনো নৈতিক অধিকার নেই। রাজধানীর গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে বাজেট নিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, এ বাজেট জনগণ গ্রহণ করেনি। বাজেটে বৈষম্য বাড়বে। ধনীরা আরও ধনী হচ্ছে, দরিদ্ররা আরও দরিদ্র হচ্ছে। মধ্যবিত্ত-নিম্ন মধ্যবিত্তের ওপর করের চাপ বাড়বে। বাংলাদেশের বৃহত্তর জনগোষ্ঠী অর্থনৈতিক চাপে পড়বে। জনগণের প্রত্যাশা পূরণ করবে না।


বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ বলেন, আওয়ামী লীগ ও তাদের সুবিধাভোগীদের জন্য এ বাজেট। দুর্নীতির সব পথ এখন উন্মুক্ত। স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য আব্দুল মঈন খান বলেন, বাজেটের মাধ্যমে জনগণ করের বোঝা পেয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, মির্জা আব্বাস ও গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।


অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট পেশ করেন। বাজেটের প্রতিক্রিয়া জানাতে বিএনপির সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান মির্জা ফখরুল। তাতে বলা হয়, এটি উচ্চাভিলাষী বাজেট। বাজেটে ব্যয় বেড়েই চলেছে। ঘাটতি মোকাবিলায় ঋণের পরিমাণ বেড়ে যাবে। ঋণের পরিমাণ সুদসহ জমতে জমতে পাহাড়সম হলেও পরিশোধের কোনো দিকনির্দেশনা এ বাজেটে নেই, যার দায়ভার ভবিষ্যৎ প্রজন্মের ওপর পড়বে।

Comment As:

Comment (0)