খোকার মরদেহ ঢাকায় পৌঁছেছে

A+ A- No icon

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ ঢাকায় পৌঁছেছে। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা ২৬ মিনিটে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে নিউইয়র্ক থেকে দুবাই হয়ে মরদেহ ঢাকায় পৌঁছায়। বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, সাদেক হোসেন খোকার মরদেহবাহী এমিরেটস এয়ারলাইন্সের ইকে ২০২ নম্বর ফ্লাইটটি নিউইয়র্ক সময় মঙ্গলবার রাত ১১টা ২০ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় বুধবার সকাল ১০টা ২০ মিনিটে) দুবাইর পথে রওনা হয়। সেখান থেকে একই এয়ারলাইন্সের ইকে ৫৮২ নম্বর ফ্লাইটে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় সকাল ৮টা ২৬ মিনিটে ঢাকায় অবতরণ করে।


বিমানবন্দরে সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ গ্রহণ করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। বাইরে ছিলেন স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলনসহ দলের কয়েকশত নেতাকর্মী। শায়রুল বলেন, মরদেহের সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক ডেপুটি মেয়র আব্দুস সালাম, খোকার স্ত্রী ইসমাত হোসেন, বড় ছেলে ইসরাক হোসেন, ছোট ছেলে ইসফাক হোসেন, মেয়ে সারিকা সাদেকসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা রয়েছেন। 


দীর্ঘদিন নিউইয়র্কে চিকিৎসাধীন থাকার পর সোমবার (০৪ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে নিউইয়র্কের একটি হাসপাতালে মারা যান খোকা। ওইদিন রাতে নিউইয়র্কের জ্যামাইকা মুসলিম সেন্টারে তার প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সব আনুষ্ঠানিকতা শেষে নিউইয়র্কের স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাত ১১টা ২০ মিনিটের ফ্লাইটে ঢাকার পথে মরদেহ নিয়ে স্বজনরা রওনা হন। 


বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষে খোকার মরদেহ সরাসরি সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় নিয়ে যাওয়া হবে। বেলা ১১টায় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর মরহুমের মরদেহ সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য বেলা ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাখা হবে। বাদ জোহর নয়াপল্টনে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। বিকেল ৩টায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে মরহুমের মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে এবং সেখানে নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। সেখান থেকে গোপীবাগে মরহুমের নিজস্ব বাসভবনে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে। বাদ আছর মরহুমের বাসভবন থেকে মরদেহ ধুপখোলা মাঠে নিয়ে যাওয়া হবে এবং সেখানে শেষ নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। জানাজা শেষে জুরাইন কবরস্থানে মায়ের কবরে তাকে দাফন করা হবে।

Comment As:

Comment (0)