সাদেকের ছনের ঘরে দর্শনার্থীদের ভিড়

A+ A- No icon

শহরের খুব কাছে এক বেলার অবকাশে ঘুরে আসা আর খাওয়ার জন্য ‘ছনের ঘর’ হতে পারে আদর্শ স্থান। ছনের ঘরে বসার প্রতিটি ঘরে ব্যবহার করা হয়েছে ছনের ছাউনি। খাওয়ার টেবিল-চেয়ারগুলো বানানো হয়েছে বাঁশ দিয়ে। গ্রামীণ ঐতিহ্যের সাথে মিল রেখে তৈজসপত্র হিসেবেও ব্যবহার হচ্ছে মাটির জিনিস। খাওয়া শেষ করে ছনের ঘরের ছাউনির নিচেই বাঁশের চেয়ার-টেবিলে বসে দিতে পারেন জমিয়ে আড্ডা।
 

ঢাকা থেকে সকাল ১০-১১টার দিকে বের হয়ে খেয়ে-দেয়ে সবুজ প্রকৃতি সাথে প্রেম নিবেদন আর গ্রামীণ স্বাদ উপভোগ করে বিকেল ৫-৬টার মধ্যে ফিরতে পারবেন ঢাকা শহরে। তবে ফেরার আগে ছনের ঘরে তৈরি এক কাপ লেবুপাতা আর লেবু চা খেয়ে আসবেন। কারণ এই চায়ের অসাধারণ স্বাদই আপনাকে পরের বার ছনের ঘরে যেতে উদ্বুদ্ধ করবে।
 

গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার নাগরী ইউনিয়নের পানজোড়া গ্রাম। ছনের ঘর রেস্তোরাঁটি এই পানজোড়া গ্রামে। গ্রামেরই কৃষক আব্দুস সামাদের ছেলে মো. সাদেক মিয়া চলতি বছরের শুরুতে ৫ শতাংশ জমিতে প্রতিষ্ঠা করেন ছনের ঘর রেস্তোরাঁটি। কাঞ্চন-গাজীপুর বাইপাস থেকে কালীগঞ্জের দিকে এগোলেই পানজোড়ায় পেয়ে যাবেন ছনের ঘর।

Comment As:

Comment (0)