পেঁয়াজের মৌসুমে বিদেশ থেকে আমদানি বন্ধের চিন্তা

A+ A- No icon

কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক বলেছেন, দেশে পেঁয়াজের মৌসুমে বিদেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধের চিন্তা-ভাবনা করছে সরকার। তবে এখনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। চাষিরা যাতে পেঁয়াজের ন্যায্য মূল্য পান, সে জন্যই চিন্তা-ভাবনাটি হচ্ছে বলে জানান তিনি। রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের এক সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা জানান কৃষিমন্ত্রী। সেমিনারে তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।


সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে কৃষিমন্ত্রী বলেন, আমরা দেশের চাহিদার ৬০-৭০ শতাংশ পেঁয়াজ উৎপাদন করি। বাকিটা বিদেশ থেকে আমদানি করতে হয়। গত বছর আমাদের দেশে পেঁয়াজ ভালো হয়েছিল। কিন্তু আগাম বৃষ্টির কারণে কৃষকেরা সেই পেঁয়াজ ঘরে তুলতে পারেনি। যার কারণে সংকট হয়েছে। তবু আমরা বিদেশ থেকে আমদানি করে চাহিদা মেটাতে পারতাম। হঠাৎ ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করবে সেটি আমরা চিন্তাও করিনি। ভারতের পেঁয়াজ না আসার কারণেই এমন পরিস্থিতি হয়েছে। তবে বিভিন্ন দেশ থেকে পেঁয়াজ আনার চেষ্টা করছে সরকার। তিনি আরও বলেন, নতুন পেঁয়াজ আগামী ১৫ থেকে ২৫ দিনের মধ্যে বাজারে আসবে। তখন পেঁয়াজের দাম কমে আসবে।


পেঁয়াজের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে না পারার ব্যর্থতা সরকার নেবে কিনা জানতে চাইলে কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক বলেন, পেঁয়াজ অত্যাবশ্যকীয় খাদ্য নয়। তবে আমরা সব সময়ই পেঁয়াজ খাই। এটি গুরুত্বপূর্ণ খাদ্য। প্রকৃতি ও ভারতের রপ্তানি বন্ধের সিদ্ধান্তের কারণে পরিস্থিতি এমন হয়েছে। এটি কিন্তু সাময়িক। আমরা ধান, আলু, মাছ, পোলট্রিসহ বিভিন্ন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছি। কৃষি খাতের এই সফলতা তো পেঁয়াজের কারণে অম্লান হবে না। অপর এক প্রশ্নের জবাবে কৃষিমন্ত্রী বলেন, বাজার তদারকি করে কোনো পণ্যের দাম খুব একটা নিয়ন্ত্রণ করা যায় না। বাজারে পণ্যের দাম ঠিক হবে চাহিদা ও জোগানের ভিত্তিতে।

Comment As:

Comment (0)