বার্সেলোনার জার্সিতে খুব বেশিদিন আর দেখা যাবে না মেসিকে

A+ A- No icon

এ মৌসুমে পুরো দলবদলে সবাই তাকিয়ে ছিল বার্সেলোনার দিকে। নেইমার জুনিয়র যে তাঁর সাবেক ক্লাবে ফিরতে চান এটা সবাই জানত। কিন্তু প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) কাছ থেকে তাঁকে কীভাবে টেনে আনবে সেটা দেখার অপেক্ষাতেই ছিল সবাই। কিন্তু মাত্রই আঁতোয়ান গ্রিজমানকে দলে টেনে তহবিলের দিক থেকে একটু দুর্বল হয়ে পড়েছিল কাতালানরা।

 

ফলে বহু চেষ্টার পরও পিএসজি থেকে নেইমারকে আনা হয়নি বার্সেলোনার। তবে নেইমারকে আনার চেষ্টায় মেসি তাঁর সম্ভাব্য অবসরের ঘোষণাও দিয়ে দিয়েছেন! নেইমারের প্রত্যাবর্তনের অপেক্ষায় ছিলেন লিওনেল মেসি-জেরার্ড পিকেরা। এমনকি দলবদলের মৌসুম শেষ হওয়ার পরও এ নিয়ে হতাশার কথা জানিয়েছেন তাঁরা। মেসি তো বার্সেলোনা নেইমারকে আনার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছে কি না, এ নিয়েই সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন।

 

বার্সেলোনার চেষ্টায় কমতি ছিল কিনা, সেটা আলোচনা সাপেক্ষ। তবে মেসির চেষ্টায় যে কোনো ত্রুটি ছিল না এটা আবারও জানা গেল। ২০১৭ সালে বার্সেলোনা ছাড়ার সময় একটা কারণই জানা গিয়েছিল, সেটা হলো মেসির ছায়ায় থাকতে রাজি নন নেইমার। নিজের মতো করে একটি দলের প্রধান হবেন। সে দলকে সব জিতিয়ে নিজেই হবেন সর্বেসর্বা। দুই বছরের মাথায় মোহ ভেঙেছে তাঁর। আর এ বছর তাই পুরোনো সঙ্গীদের ডেরায় ফিরতে চেয়েছিলেন।

 

এ ব্যাপারে মেসিও অনুপ্রাণিত করেছিলেন। জানিয়েছিলেন, আর কদিন পরই তাঁর রাজত্ব নেইমারকে বুঝিয়ে দেবেন। ফ্রান্স ফুটবলের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, মেসি নাকি নেইমারকে বলেছেন, ‘আবার চ্যাম্পিয়নস লিগ জিততে হলে আমাদের আবার এক হতে হবে, তাহলেই শুধু পারব। দুই বছর পর আমি চলে যাব। তখন তুমি আমার জায়গা নিতে পারবে।’

 

‘দুই বছর পর চলে যাবেন’, তার মানে ২০২০-২১ মৌসুমেই বার্সেলোনা ছাড়ার পরিকল্পনা করছেন মেসি। মেসি বেশ আগেই জানিয়েছেন ইউরোপে বার্সেলোনা ছাড়া অন্য কোনো ক্লাবে খেলবেন না। তবে ছোটবেলার ক্লাব আর্জেন্টিনার নিউ ওয়েলস ওল্ড বয়েস ক্লাবে ফেরার ইচ্ছা আছে তাঁর। আর পারিবারিক কারণে সেটা সম্ভব না হলে অবসরই নেবেন মেসি। সে ক্ষেত্রে সম্ভাব্য অবসরের ঘোষণাটা কি দিয়েই দিলেন মেসি?

Comment As:

Comment (0)