ব্যাচেলর সমস্যা দূর করতে আসছে রোবট ‘বধূ’

A+ A- No icon

চীনে নারীর তুলনায় পুরুষের সংখ্যা বেশি হয়ে যাওয়ায় গবেষকরা তৈরি করেছেন কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্স বা এআই) সম্পন্ন রোবট 'বধূ'। চীন ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম সোহুর দাবি, 'এই 'এআই ওয়াইফ' রোবট উদ্ভাবনে ভবিষ্যতে আর আসল মানুষকে বিয়ে করার প্রয়োজন হবে না'। তবে রোবটটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের নাম এখনও জানানো হয়নি।


চীনা গবেষকদের তৈরী এই রোবটের মুখ ও অভিব্যক্তি হবে সত্যিকারের নারীর মতো। এমনকি তার ত্বকের তাপমাত্রাও হবে সাধারণ মানুষের মতোই। তবে এই 'এআই ওয়াইফ' মূলত সেক্স রোবট হলেও ঘরের নিত্যদিনের সব কাজের পাশাপাশি মানুষের সঙ্গে কথাবার্তা বলতে সক্ষম বলে জানিয়েছেন গবেষকরা। ভবিষ্যতে ক্রেতার চাহিদা অনুযায়ী তৈরি করা হবে এই রোবট যার জন্য ক্রেতাদের গুনতে হবে প্রায় ৩ হাজার মার্কিন ডলার বা আড়াই লাখ বাংলাদেশি টাকা।


বেইজিংয়ে অবস্থিত ক্যাপিটাল নরমাল ইউনিভার্সিটির প্রাক্তন অধ্যাপক লি ইউয়ানহুয়া জানান, 'চীনে নারীর তুলনায় পুরুষের সংখ্যা বৃদ্ধির প্রধান কারণ এক-সন্তান নীতি। চীনে বর্তমানে প্রতি ১০০ নারীর জন্য রয়েছে ১০৪.৬৪ জন পুরুষ। এ কারণে অনেক পুরুষ বিয়ে করার জন্য কাউকে খুঁজে পাচ্ছেন না। প্রায় ৬০ লাখ অবিবাহিত পুরুষ সম্মুখিন হচ্ছেন এই সমস্যার'। পাশাপাশি দেশটির অবিবাহিত পুরুষদের বিয়ের জন্য মেয়ে খুঁজে না পাওয়ার বিষয়ে চাইনিজ একাডেমি অব সোশ্যাল সায়েন্সেস জানায়, '২০২০ সাল নাগাদ চীনে ২৪ মিলিয়ন সিঙ্গেল পুরুষ থাকবে, যারা বিয়ে করার জন্য মেয়ে পাবে না। তাদের কথা মাথায় রেখেই এই 'রোবট ওয়াইফ' তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে'।


তবে অবিবাহিত পুরুষদের সমস্যা সমাধানের জন্য নির্মিত 'রোবট ওয়াইফ' নিয়ে ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে সমালোচনার ঝড়। অনেকেই মনে করছেন এই রোবট তৈরির পেছনে চীন সরকারের অসাধু উদ্দেশ্য থাকতে পারে। এ বিষয়ে চীনা পর্যবেক্ষক গু হে নিজের মতামত জানিয়ে বলেন, 'এই রোবট একজন মানুষের ঘরের ভেতরের ছবি, ভিডিও, এমনকি কথোপকথন রেকর্ড করতে পারে এবং গুপ্তচরের কাজ করতে পারে'। আবার অনেকের আশঙ্কা, এমন রোবট মানব জাতির বিলুপ্তির কারণও হয়ে উঠতে পারে।

Comment As:

Comment (0)