অ্যাপল ওয়াচ হারিয়ে গেলে করণীয়

A+ A- No icon

নাকের ডগায় থাকার পরও অনেকে সারা বাড়ি তন্নতন্ন করে চশমা খোঁজেন। এমন ভুলোমনার সংখ্যা অবশ্য হাতে গোনা। তবে মন ভুলেই হোক কিংবা অসাবধানে মুঠোফোন হারিয়ে ফেলা নিত্যদিনের ঘটনা। একই ব্যাপার ঘটে ঘড়ির বেলায়ও। খুব সতর্ক মানুষ নিজে না হারালেও পরিবারের ছোট সদস্যটি হয়তো খেলতে খেলতে ঘড়িটি হারিয়ে ফেলতে পারে। সেটি হয়তো ঘাপটি মেরে বসে থাকতে পারে খেলনার ভিড়ে। আইফোনের ‘ফাইন্ড মাই’ অ্যাপটি এ ক্ষেত্রে দারুণ এক সমাধান। সম্প্রতি অ্যাপল ওয়াচেও একই সুবিধা যুক্ত হয়েছে।


কী করতে হবে?

ঘড়ি খুঁজে পেতে প্রথমে ফোনের ওয়াচ অ্যাপে যান। ‘ফাইন্ড মাই’ অ্যাপে ডিভাইস তালিকা থেকে ওয়াচে চাপ দিলেও হবে। ঘড়ির নামের ওপর ট্যাপ করুন।ঘড়ির নামের বা ছবির ডানে ইনফরমেশন সার্কেলে ট্যাপ করুন। ‘ফাইন্ড মাই অ্যাপল ওয়াচ’-এ চাপ দিন। এই ফিচারটি প্রথমবারের মতো ব্যবহার করলে ‘সেন্ড লাস্ট লোকেশন’ চালু করতে বলা হতে পারে। এর ফলে ব্যাটারি শেষ হওয়ার পরও ২৪ ঘণ্টা পর্যন্ত ঘড়িটির জ্ঞাত অবস্থান সংরক্ষিত থাকবে। এ পর্যায়ে পরবর্তী পেজে একটি মানচিত্র আসবে, যেখানে আপনি আপনার ঘড়ির অবস্থান দেখতে পাবেন। সঙ্গে ঘড়ি খুঁজে পাওয়ার কিছু অপশনও মিলবে এখানে।


১. ঘড়িটি ঘরেই হারিয়ে ফেললে ‘প্লে সাউন্ড’ অপশনে চাপ দিন। ঘড়ি যেখানেই থাকুক আওয়াজ দেবে। এই আওয়াজ আবার ক্রমাগতভাবে বাড়তে থাকে। অতি ভুলোমনারা ঘড়ি হাতে থাকার পরও ‘প্লে সাউন্ডে’ ট্যাপ করলে উল্টো ঘড়ির চাপ অনুভব করবেন। মানে ঘড়িও কবজিতে ট্যাপ করতে থাকবে। ঘড়ি খুঁজে পেলে আবার ‘প্লে সাউন্ড’ ট্যাপ করলে আওয়াজ বন্ধ হয়ে যাবে।


২. ঘড়ির বর্তমান অথবা আগের অবস্থান শনাক্ত করতে পারবেন।


৩. চাইলে ঘড়িটি ‘লস্ট’ হিসেবেও চিহ্নিত করতে পারেন। এটি করলে হারানো ঘড়ির জন্য একটি পাসকোড দিতে বলা হবে। চাইলে ফোন নম্বরও যোগ করতে পারবেন। একই সঙ্গে একটি বার্তাও তৈরি হবে, প্লিজ কল মি ইফ ইউ ফাইন্ড দিস ফোন। ফিচারটি চালু হওয়ামাত্র ঘড়ি লক হয়ে যাবে। যে-ই খুঁজে পাক না কেন, পাসকোড ছাড়া ঘড়িটি ব্যবহার করতে পারবে না। আর খুঁজে পাওয়ার পর আপনাকে ফেরত দিতে চাইলে আপনার ফোন নম্বরেই অবস্থান ও বার্তা চলে যাবে।


৪. ফোনও ‘লস্ট’ হিসেবে চিহ্নিত হলে কী হবে? এ ক্ষেত্রে ‘মার্ক অ্যাজ লস্ট’ অপশন চালু করলে ‘লস্ট মোড’ পেজে চলে যাবেন। যার ফলে আপনি ই-মেইলে হালনাগাদ তথ্য পাবেন অথবা ‘মার্ক অ্যাজ লস্ট’ অপশন বন্ধ করতে পারবেন।


৫. ঘড়ি চুরি হয়ে গেলে ‘ইরেজ দ্য ডিভাইস’ অপশনটি চালু করতে পারেন। তা করলে পর্দায় সতর্কবার্তা আসবে আপনি কি আসলেই ইরেজ করতে চান? ইরেজ করলে ঘড়িটি আর ট্র্যাক করা হবে না। যাহোক, তারপরও আপনি একটি ফোন নম্বর দিতে পারেন, সঙ্গে যিনি ফোনটি পাবেন, তার জন্য একটি বার্তাও।

Comment As:

Comment (0)