জাপান শক্তিশালী পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ে রয়েছে শীর্ষে

A+ A- No icon

করোনা মহামারি আঘাত হানার আগ পর্যন্ত সবকিছুই ছিল স্বাভাবিক। ইতিহাসে যেকোনও সময়ের তুলনায় বিশ্ববাসী ভ্রমণের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি স্বাধীনতা ভোগ করছিল। এর মধ্যেই হঠাৎ নেমে এলো নিষেধাজ্ঞা। প্রতিবছর সবচেয়ে ভ্রমণবান্ধব বা শক্তিশালী পাসপোর্টের র‌্যাংকিং প্রকাশ করে হেনলি পাসপোর্ট ইনডেক্স। সম্প্রতি এটি ২০২০ সালের পাসপোর্ট র‌্যাংকিং প্রকাশ করেছে। এতে সবচেয়ে শক্তিশালী পাসপোর্ট নির্বাচিত হয়েছে জাপানের। মোট ১৯১টি গন্তব্যে ভিসামুক্ত বা অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পান জাপানি পাসপোর্টধারীরা। তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে সিঙ্গাপুর। এশিয়ার ছোট্ট এই নগররাষ্ট্রটির স্কোর ১৯০। ১৮৯ স্কোর নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া ও জার্মানি। হেনলি’র এই সূচকে সাধারণত অস্থায়ী ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা বিবেচনায় নেয়া হয় না। ফলে এই মুহূর্তে বিভিন্ন দেশের ভিসামুক্ত বা অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধার সঙ্গে হেনলি ইনডেক্সের র‌্যাংকিং পয়েন্টের খুব একটা মিল নেই।


করোনা মহামারির কারণে কয়েক মাস সীমান্ত বন্ধ থাকার পর গত সপ্তাহে ১৪টি দেশের নাগরিকদের জন্য ফের দরজা খুলেছে ইউরোপ। করোনা সম্পর্কিত স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) নির্ধারিত মানের সূচকে ভালো করায় জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, অস্ট্রেলিয়া, কানাডার (হেনলি র‌্যাংকিংয়ে ৯ম) মতো দেশগুলোর জন্য উন্মুক্ত হয়েছে ইউরোপের দরজা। তবে মহামারি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল ও রাশিয়া বাদ পড়েছে এই তালিকা থেকে। হেনলির বর্তমান সূচকে যুক্তরাষ্ট্র সপ্তম হলেও ইইউ’র নিষেধাজ্ঞার কারণে দেশটির নাগরিকরা ভ্রমণ সুবিধা পাচ্ছেন তালিকার ২৫তম মেক্সিকো এবং ২৮তম উরুগুয়ের নাগরিকদের সমান। র‌্যাংকিংয়ে ব্রাজিল ১৯তম হলেও বর্তমান বাস্তবতায় তাদের অবস্থান ৩৬তম প্যারাগুয়ের সমান। তালিকার দুইয়ে থাকা সিঙ্গাপুরও ইউরোপীয় ইউনিয়নের ভ্রমণসুবিধাপ্রাপ্তদের তালিকা থেকে বাদ পড়ায় র‌্যাংকিংয়ে ওপরের দিকে থাকা দেশগুলোর চেয়ে অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে।


হেনলি পাসপোর্ট ইনডেক্সে বাংলাদেশের অবস্থান বর্তমানে ১০১তম। ৪১টি গন্তব্যে ভিসামুক্ত বা অন-অ্যারাইভাল ভিসা সুবিধা পান বাংলাদেশিরা। গত বছরও বাংলাদেশ র‌্যাংকিংয়ে একই অবস্থানে ছিল।

Comment As:

Comment (0)